কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো এবং ভাইরাল করবো

কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো এর প্রশ্ন অনেকে গুগলে সার্চ করছেন। তাই আজকের আর্টিকেলে আমি বলবো টিকটক ভিডিও তৈরি করার সহজ উপায়।

বর্তমানে সবাই ইন্টারনেট সহজে ভাইরাল হওয়ার জন্য টিকটক ভিডিও তৈরি করছে। আসলে টিকটক হলো এমন একটি অ্যাপ্লিকেশন যার মাধ্যমে মনের মতো ভিডিও বানানো যায়।

পুরে বিশ্বে যত গুলো জনপ্রিয় ভিডিও স্ট্রিমিং অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে তার মধ্যে Tiktok জায়গা করে নিয়েছে। যুবকরা থেকে বৃদ্ধরা পর্যন্ত সবাই সময় কাটানোর জন্য এই টিকিট অ্যাপ (tiktok app) ব্যবহার করছেন।

আপনি যদি গুগল প্লেস্টোরে নজর দেন তাহলে বুঝতে পারবেন এই অ্যাপের জনপ্রিয় দিন দিন কতটা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই অ্যাপটি ১ বিলিয়নের বেশি বার ডাউনলোড হয়েছে।

বড় বড় সেলিব্রিটি থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ সবাই tiktok video তৈরি করছেন। তাছাড়া এই বড় অডিয়েন্সেরা হলো তরুণ প্রজন্ন।

তাই আপনি যদি ভালো টিকটক ট্রেন্ডিং ভিডিও তৈরি করতে পারেন তাহলে দ্রুত সময়ের মধ্যে জনপ্রিয়তা লাভ করবেন এবং টিকটক থেকে আয় করতে পারবেন।

তাই আপনাদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে আজকে আলোচনা করবো টিকটক ভিডিও তৈরি করার সেরা কিছু টিপস সম্পর্কে।

ফেসবুক আইডির নাম পরিবর্তন করুন ৫ মিনিটে

আপনি যদি এই নিয়ম গুলো অনুসারণ করে কাজ করতে পারেন তাহলে আপনি হয়ে যেতে পারেন সেরা একজন টিকটক স্টার।

Tiktok ভিডিও বানানোর জন্য প্রথমে আপনার দরকার হবে টিকটক করার সফটওয়্যার। এই টিকটক সফটওয়্যার আপনি গুগল প্লেস্টোর থেকে সম্পূর্ণ ফ্রীতে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

Tiktok software ডাউনলোড করার পরে ভিডিও বানানোর জন্য আপনাকে অবশ্যই আইডি খুলতে হবে। আইডি না খুললে আপনি ভিডিও বানাতে বা আপলোড করতে পারবেন না।

কিভাবে টিকটক আইডি খুলবো? (How to create tiktok account)

বর্তমানে অধিকাংশ মানুষ টিকটক ব্যবহার সম্পর্কে বিস্তারিত জানে। কিন্তু, এখানো অনেক মানুষ আছে যারা এখনো জানে না কিভাবে টিকটক আইডি খুলবো।

মোবাইলে টিকটিক অ্যাপ ব্যবহার করে খুব সহজে আইডি খুলে নিতে পারবেন। এজন্য অ্যাপে প্রবেশ করে “সাইন আপ” অপশনে ক্লিক করতে হবে।

সাইন আপ অপশনে ক্লিক করার পরে আইডি খোলার জন্য অনেক গুলো অপশন দেখতে পাবেন। যেমন Use phone & email, Facebook এবং Google account দিয়ে টিকটক আইডি খুলতে পারবেন। 

এখান থেকে যেকোনো একটি অপশন সিলেক্ট করে টিকটক আইডি খুলতে পারবেন। তবে, আমি আপনাকে পরামর্শ দিবো ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে  টিকটক আইডি খোলার জন্য।

তাহলে দ্রুত সময়ের মধ্যে Tiktok ID খুলতে পারবেন। ফেসবুক অপশনে ক্লিক করে আপনার জন্ম তারিখ সিলেক্ট করলে আইডি খোলার কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যাবে।

মনে রাখবেন, টিকটক আইডি খুলতে গেলে আপনার বয়স অবশ্যই ১৮ বছরের বেশি হতে হবে।

এবার আপনার টিকটক আইডি ভেরিফাই করতে হবে মোবাইল নাম্বার এবং ইমেইল এড্রেস দিয়ে। আপনি মোবাইল নাম্বার এবং ইমেইল এড্রেস যেটা দিয়ে ভেরিফাই করতে চান সেটাতে টিকটক থেকে কোড পাঠাবে সেটার মাধ্যমে ভেরিফাই করে নিবেন।

TikTok আইডি খোলার কাজ সম্পূর্ণ হয়ে গেছে। এবার আপনাকে টিকটক ভিডিও বানানোর নিয়ম জানতে হবে।

কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো

টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো এই প্রশ্ন জানার জন্য আপনারা অনেকে গুগলে সার্চ করছেন। তাই সঠিক ভাবে টিকটক ভিডিও তৈরি করার জন্য নিচের ধাপ গুলো অনুসারণ করুন।

  • প্রথমে টিকটক অ্যাপে প্রবেশ করে “+” আইকনে ক্লিক করুন।
  • এবার নিজে টিকটক ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও রেকর্ড করুন বা আপনার ডিভাইস থেকে কনটেন্ট আপলোড করুন।
  • পাশে থেকে সাউন্ড, ফিল্টার, এফেক্ট এবং অন্যান্য আইকন গুলো ভিডিও এর যুক্ত করুন।
  • এবার রেকর্ড (record) অপশনে ক্লিক করে ভিডিও রেকর্ড করুন।
  • এরপর চেক মার্ক অপশনে ক্লিক করুন।
  • অতিরিক্ত পোস্ট পেজ সম্পাদনা করুন।
  • শেষে পোস্ট অপশনে ক্লিক করে ভিডিও পোস্ট / আপলোড করে দিন।

টিকটকে কত সময় ভিডিও বানানো যায়?

টিকটক করার সফটওয়্যার বা অ্যাপ ব্যবহার করে আপনি শর্ট (short) টাইমের ভিডিও তৈরি করতে পারবেন। যেমন –

  • ১৫ সেকেন্ডের ভিডিও বানাতে পারবেন।
  • ৬০ সেকেন্ডের ভিডিও বানাতে পারবেন।

তবে, অধিকাংশ ভিডিও গুলো ১৫ সেকেন্ডের হয়।

কিভাবে টিকটক স্লো মোশন ভিডিও বানাবো?

টিকটকের সব থেকে জনপ্রিয় ট্রেন্ডিং হলো স্লো মোশন ভিডিও। কারণ, অনেক সহজে টিকটকে স্লো মোশন ভিডিও গুলো ভাইরাল হয়ে যায়।

তাই, কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো এই আর্টিকেলের গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ হলো টিকটক স্লো মোশন ভিডিও তৈরি করা।

এজন্য নিচের ধাপ গুলো অনুসারণ করুন –

  • প্রথমে টিকটক অ্যাপ্লিকেশন ওপেন করে “+” আইকনে ক্লিক করুন।
  • ভিডিও রেকর্ড (record) করার পরে নিচের বাম পাশে ইফেক্ট অপশনে ক্লিক করুন।
  • ক্রল করে ডান দিকে নেভিগেট করে সময় নির্বচন করুন।
  • এবার স্লো মোশন অপশনে ক্লিক করুন এবং ভিডিও এর যে জায়গায় স্লো মোশন ব্যবহার করতে চান সেটা নির্বচন করুন।
  • স্কিনের উপরে ডানপাশে সেভ (Save) অপশনে ক্লিক করুন।
  • এবার ভিডিও টিকটকে আপলোড করার জন্য ক্যাপশন এবং অন্যান্য বিবরণ লিখে পোস্ট অপশনে ক্লিক করে আপলোড করুন।

টিকটক লেখা ভিডিও কিভাবে বানাবো?

টিকটক লেখা ভিডিও বানানোর জন্য প্রথমে আপনাকে একটি এন্ড্রয়েড অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। google play store থেকে সম্পূর্ণ ফ্রীতে এই PixelLab ডাউনলোড করতে পারবেন।

এবার আপনার গুগল থেকে বিভিন্ন ধরনের ছবি ডাউনলোড করে PixelLab অ্যাপের মাধ্যমে ছবির উপর স্টাইল ফন্ট ব্যবহার করে প্রয়োজনীয় লেখা গুলো লিখতে হবে।

এবার InShot ভিডিও এডিটর অ্যাপের মাধ্যমে যে সাইজের ভিডিও আপনি টিকটকে আপলোড করতে চাচ্ছেন সেই সাইজের ভিডিও তৈরি করুন।

এই InShot অ্যাপে ভিডিও বানানোর জন্য বিভিন্ন সাইজ পেয়ে যাবেন। সাথে বিভিন্ন ধরনের স্টাইল ফন্ট, ইফেক্ট, সাউন্ড সহ আরো বিভিন্ন ধরনের অপশন গুলো পেয়ে যাবেন।

এখান থেকে ভিডিও তৈরি করে আপনি টিকটক আইডিতে আপলোড করতে পারবেন। এভাবে আপনি টিকটক লেখা ভিডিও বানাতে পারবেন।

ছবি দিয়ে কিভাবে টিকটক বানাবো?

নিজের ছবি বা অন্য কোনো ছবি দিয়ে আপনি টিকটক বানিয়ে নিতে পারবেন। এজন্য সব থেকে সহজ উপায় হলো যে কোনো ভিডিও এডিটর অ্যাপ ব্যবহার করে ছবি দিয়ে একটি ভিডিও তৈরি করে নেওয়া।

ছবি দিয়ে ভিডিও বানানোর সফটওয়্যার গুলোর মধ্যে সেরা হলো InShot এন্ড্রয়েড অ্যাপ। এই অ্যাপের মাধ্যমে ভিডিও বানিয়ে আপনি টিকটক আইডিতে আপলোড করতে পারবেন।

কিভাবে টিকটক ভিডিও ভাইরাল করবো?

আপনি যদি অনলাইনে ভাইরাল এবং জনপ্রিয় হতে চান তাহলে টিকটক অ্যাপের মাধ্যমে সেটা দ্রুত সম্ভব। এমন অনেকে আছেন যারা টিকটকে ভিডিও বানিয়ে ভাইরাল হয়েছে।

এখন আপনি মনে প্রশ্ন আসতে পারে আমিও টিকটকে ভিডিও বানায় কিন্ত আমার ভিডিও ভাইরাল হয় না কেন?

তাহলে চলুন জেনে আসি টিকটক ভিডিও ভাইরাল করার উপায় ও করণীয় গুলো কি কি?

  • বর্তমানে যে গান মানুষ কাছে খুব জনপ্রিয় সেই গান দিয়ে ভিডিও বানাবেন।
  • ট্রেন্ডিং অবশ্যই হ্যাশট্যাগ (#) ব্যবহার করবেন।
  • ভিডিও পরিস্কার ভাবে বুঝানোর জন্য সাউন্ডের সাথে ভিডিওতে টেক্সট লিখে দিবেন।
  • বিভিন্ন ট্রানজিশন ভিডিওতে ব্যবহার করতে পারেন।
  • আকর্ষনীয় ফিল্টার, ইফেক্ট ইত্যাদি ব্যবহার করুন।
  • স্লো মোশন ভিডিও বানাবেন, কারণ বর্তমানে টিকটকে স্লো মোশন খুব জনপ্রিয়।

টিকটক ভিডিও কিভাবে ডাউনলোড করে?

TikTok video download করার জন্য প্রথমে অ্যাপটি ওপেন (open) করুন। এবার আপনি যে ভিডিও ডাউনলোড করতে চান সেই ভিডিওতে ডান পাশে শেয়ার (share) আইকন দেখতে পাবেন।

এই শেয়ার (share) আইকনে ক্লিক করার পরে সেভ ভিডিও (Save video) অপশন দেখতে পাবেন। এই সেভ ভিডিও অপশনে ক্লিক করলে টিকটক ভিডিও ফোনের গ্যালারিতে সেভ বা ডাউনলোড হয়ে যাবে।

তবে, টিকটকের সব ভিডিও আপনি এভাবে ডাউনলোড করতে পারবেন না। কিছু কিছু ভিডিওতে ডাউনলোড অপশন দেখতে পাবেন না।

যে ভিডিও গুলোতে ডাউনলোড অপশন দেখতে পাবেন না সেই ভিডিও গুলো অন্য ভাবে (অ্যাপ দিয়ে) ডাউনলোড করতে হবে।

অ্যাপের মাধ্যমে ভিডিও ডাউনলোড করার নিয়ম জেনে নিন

টিকটকের যে ভিডিও গুলো শেয়ার করার পরে  ডাউনলোড অপশন দেখতে পাবেন না সেই ভিডিও গুলো ডাউনলোড করার জন্য আপনাকে একটি অ্যাপের সাহায্য নিতে হবে।

এই অ্যাপের ডাউনলোড লিংক আমি এখানে দিয়ে দিয়েছি। এই লিংকে ক্লিক করে অ্যাপ ডাউনলোড করুন।

এবার আপনি যে টিকটক ভিডিও ডাউনলোড করতে চান সেই ভিডিও এর পাশে থাকা শেয়ার (share) অপশনে ক্লিক করুন।

এবার আপনি কপি লিংক (Copy Link) অপশন দেখতে পাবেন। এখানে ক্লিক করে ভিডিও লিংক কপি করে নিন।

এবার আপনাকে Video downloader অ্যাপে যেতে হবে। এখানে টিকটক ভিডিও এর কপি করা লিংক পেস্ট (past) করে নিচে থাকা ডাউনলোড অপশন ক্লিক করলে ডাউনলোড শুরু হবে।

কিভাবে টিকটক ভিডিও ডিলিট করবো?

টিকটক ভিডিও ডিলিট করার নিয়ম অনেক সহজ। আপনার টিকটক আইডি থেকে কোনো ভিডিও ডিলিট করতে চাইলে সেই ভিডিও সিলেক্ট করুন।

এবার ভিডিও এর নিচে ডান পাশে 3ডট (…) আইকনে ক্লিক করলে আপনি ডিলিট (delete) অপশন দেখতে পাবেন। ডিলিট অপশনে ক্লিক করলে ভিডিও ডিলিট হয়ে যাবে।

জিও ফোনে কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো?

জিও (Jio) ফোনে সাধারণত টিকটক করার অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টল (install) করা যায় না। কারণ, এই অ্যাপ্লিকেশনের এক্সেস জিও কোম্পানি দেয় নি।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে যারা জিও ফোন ব্যবহার করেন তারা কি টিকটক ভিডিও তৈরি করতে পারবে না? হা অবশ্যই পারবে।

এজন্য আপনি google chrome, opera mini বা অন্য যেকোনো ওয়েব ব্রাউজার থেকে TikTok web version ব্যবহার করতে পারবেন।

তাছাড়া আপনি ফেসবুক ও ইউটিউবে প্রচুর টিকটক ভিডিও পাবেন সেগুলো দেখতে পারেন।

শেষ কথা

আজকে আমরা শিখলাম কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো এর সম্পর্কে বিস্তারিত। টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো এই সম্পর্কে যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তাহলে কমেন্ট করুন।

শেষে ভালো লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap